"বিশ্বকাপের প্রথম" হ্যাট্রিক পর্বঃ১

"বিশ্বকাপের প্রথম"
হ্যাট্রিক
পর্বঃ১


দেখতে দেখতে বিশ্বকাপ প্রায় চলেই এলো। আর মাত্র ৯৯ দিন বাকী। তাই ভাবলাম যে বিশ্বকাপ নিয়ে কিছু একটা লেখা দরকার। যেই ভাবা সেই কাজ, বিশ্বকাপে ঘটা প্রথম সব রেকর্ড নিয়ে একটা সিরিজ লেখায় যায়। আজকের পর্বে থাকছে বিশ্বকাপের প্রথম হ্যাট্রিক।
-
হ্যাট্রিক শব্দটা খুবই পরিচিত একটা শব্দ। কিন্তু ক্রিকেটে কিভাবে বা কবে এর প্রচলন ঘটেছে তা আমরা অনেকেই জানিনা। তাই আজকের পর্বের সাথে হ্যাট্রিক নিয়ে সম্যক আলোচনা করলে মন্দ হয়না।
-
ক্রিকেট খেলায় যখন একজন বোলার ধারাবাহিক ভাবে ৩টি বল ছুড়ে তিনজন ব্যাটসম্যানকে আউট করার মাধ্যমে ৩টি উইকেট লাভ করেন তখন তাকে ক্রিকেটের পরিভাষায় হ্যাট্রিক বলে। ১৮৫৮ সালে সর্বপ্রথম এই পরিভাষাটি ক্রিকেট খেলায় ব্যবহৃত হয়। কেননা এই বছরে শেফিল্ডের হাইড পার্ক গ্রাউন্ডে অল ইংল্যান্ড ইলিভেনের পক্ষে এইচএইচ স্টিফেনসন পরপর তিন বলে ৩ উইকেট লাভ করেন, তখন তাকে পুরস্কার স্বরূপ একটা হেট প্রদান করা হয়। তখন থেকেই ক্রিকেটে হ্যাট্রিকের উৎপত্তি। কিন্তু মুদ্রণশিল্পে এই হ্যাট্রিকের প্রথম ব্যবহার হয় ১৭৭৮ সালে। পরবর্তীতে ফুটবল, হ্যান্ডবল, ওয়াটার পোলোর ন্যায় বিভিন্ন খেলায় এই পরিভাষাটি ব্যবহার করা শুরু হয়।
-
১৯৮৭ সালের ৩১ অক্টোবরের কথা। ভারতে চলছে বিশ্বকাপের ৪র্থ আসর। আসরের ২৪ তম ম্যাচ চলছে নাগপুরের ভিদার্ভা সিএ গ্রাউন্ডে। স্বাগতিক ভারতের প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড। টস ভাগ্যে জিতে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয় কিউইরা। শুরু থেকেই ঠান্ডা মাথায় খেলতে থাকে কিউইরা। দলীয় ৪৬ রানে প্রথম উইকেটের পতন ঘটে কিউইদের। এরপর ৮৪/২, ৯০/৩, ১২২/৪, ১৮১/৫ উইকেট হারানোর পর বিপাকে পড়ে যায় কিউইরা।
-
ঠিক তখনি নিজের ৬ষ্ঠ ওভার করতে আসেন চেতন শর্মা। কিউইদের দলীয় রান তখন ৫ উইকেটে ১৮২, রাদারফোর্ড ৫৩ বলে ২৬ রান নিয়ে ক্রিজে আছেন। বল হাতে এগিয়ে আসছেন ডান হাতি ফাস্ট মিডিয়াম বোলার চেতন শর্মা, বল ছুড়লেন সাথেসাথে বল গিয়ে আঘাত হানে স্ট্যাম্পে, আর রাদারফোর্ড বোল্ড আউটের শিকার হয়ে প্যাভিলিয়ন ত্যাগ করেন। পরের ২ বলে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ইয়ান স্মিথ ও ইয়েন চ্যাটফিল্ডকে বোল্ড আউট করে বিশ্বকাপে প্রথম হ্যাট্রিক করার কৃতিত্ব অর্জন করেন চেতন শর্মা।
-
বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত হ্যাট্রিক হয়েছে মোট ৯ বার, কিন্তু প্রথম হ্যাট্রিককারী বোলারকে মানুষ একটু বেশিই স্মরণ করে থাকে। কেননা তিনিই তো ইতিহাসটার প্রারম্ভটা এনে দিয়েছিলেন।
-
বিশ্বকাপে সর্বশেষ হ্যাট্রিককারী বোলারের নাম কি আপনাদের মনে আছে? ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে শ্রীলঙ্কানদের সাথেই কিন্তু এই ঘটনা ঘটেছিলো, এইবার একটু আন্দাজ করতে পেরেছেন, তাইনা? সেই বোলারের নাম হচ্ছে জেপি ডুমিনি। লংকান কাপ্তান ম্যাথিউজ, কুলাসেকেরা ও থারিন্দু কৌশালকে পরপর তিন বলে আউট করে এই কৃতিত্ব অর্জন করেন ডুমিনি।
-
২০০৩ বিশ্বকাপের পর ২০১৫ বিশ্বকাপেও দুইটি হ্যাট্রিক হয়।
ইংল্যান্ডের স্টিভেন ফিন করেন অজিদের সাথে আর ডুমিনি করেন শ্রীলঙ্কার সাথে।
-
নিচে বিশ্বকাপে ৯ হ্যাট্রিককারী বোলারের নাম দেয়া হলোঃ

১। চেতন শর্মাঃ ১৯৮৭ বিশ্বকাপে, প্রতিপক্ষ- নিউজিল্যান্ড।
২। সাকলাইন মুশতাকঃ ১৯৯৯ বিশ্বকাপে, প্রতিপক্ষ- জিম্বাবুয়ে।
৩। চামিন্দা ভাসঃ ২০০৩ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে ইনিংসের প্রথম ওভারের প্রথম ৩ বলেই হান্নান সরকার, আশরাফুল ও ইহসানুল হককে আউট করে এই কৃতিত্ব অর্জন করেন।
৪। ব্রেটলীঃ ২০০৩ বিশ্বকাপে, প্রতিপক্ষ কেনিয়া।
৫। লাসিথ মালিঙ্গাঃ বিশ্বকাপের একমাত্র বোলার হিসেবে দুই হ্যাট্রিকের মালিক এই শ্রীলঙ্কান বোলার। প্রথম হ্যাট্রিক করেন ২০০৭ বিশ্বকাপে, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। আর ২য়টি করেন ২০১১ বিশ্বকাপে, কেনিয়ার বিপক্ষে।
৬। কেমার রোচঃ ২০১১ বিশ্বকাপে, প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ড।
৭। স্টিভেন ফিনঃ ২০১৫ বিশ্বকাপে, প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া।
৮। জেপি ডুমিনিঃ ২০১৫ বিশ্বকাপে, প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা।

দ্বিতীয় পর্বে বিশ্বকাপের প্রথম শতক নিয়ে আমি আবারও আপনাদের মাঝে হাজির হবো। আজকের মতো বিদায় নিলাম।

No comments

Powered by Blogger.