বিশ্বকাপের মঞ্চে ক্রিকেটারদের সেঞ্চুরির কিছু পরিসংখ্যান

বিশ্বকাপের মঞ্চে ক্রিকেটারদের সেঞ্চুরির কিছু 
পরিসংখ্যান

পুরুষ বিভাগের ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ শুরুর ১০০ দিনের কাউন্টডাউন শুরু হয়ে গেছে। ৩০ মে ইংল্যান্ডের ওভালে শুরু হবে বিশ্বকাপের নতুন আসর। যা নিয়ে এখনই ক্রিকেট ভক্তদের মধ্যে উত্তের্জনা শুরু হয়ে গেছে। চলুক বিশ্বকাপের মঞ্চে সেঞ্চুরির পরিষংখ্যানটার দিকে চোখ বুলিয়ে নেওয়া যাক। ১৯৭৫ সালে পুরুষ বিভাগে বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার পর এ পর্যন্ত মোট সেঞ্চুরি হয়েছে ১৬৫টি। আইসিসি বিশ্বকাপে এই ১৬৫টি সেঞ্চুরি করেছেন ১০৩ জন খেলোয়াড়।

বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি ছয়টি সেঞ্চুরি করেছেন ভারতীয় লিটল মাস্টার শচিন টেন্ডুলকার। পাঁচটি করে সেঞ্চুরি হাকিয়ে টেন্ডুলকারের পরের অবস্থানে যৌথভাবে আছেন অস্ট্রেলিয়ার রিকি পন্টিং এবং শ্রীলংকার কুমার সাঙ্গাকারা।এছাড়া বিশ্বকাপে চারটি করে সেঞ্চুরি করা পাঁচ খেলোয়াড় দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্স, শ্রীলংকার তিলকরত্নে দিলশান-মাহেলা জয়াবর্ধনে, ভারতের সৌরভ গাঙ্গুলি এবং অস্ট্রেলিয়ার মার্ক ওয়াহ।

এক আসরে সর্বাধিক সেঞ্চুরিঅন্য যে কোন আসরের চেয়ে বেশি সেঞ্চুরি হয়েছে ২০১৫ বিশ্বকাপে। এ আসরে পর পর চার ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছেন শ্রীলংকার কুমার সাঙ্গাকারা। যা এর আগে আর কেউ করে দেখানে পারেনি। চার বছর আগের এ আসরে ৩৪টি সেঞ্চুরি হয়েছে। যা ২০১১ বিশ্বকাপের চেয়ে ১৪টি বেশি।

পুরুষ বিশ্বকাপের প্রথম আসর ১৯৭৫ সালে সেঞ্চুরি হয়েছিল মোট ছয়টি। দ্বিতীয় আসর ১৯৭৯ সালে শত রানের ইনিংস ছিল দু’টি। এরপর ১৯৮৩ সালে ১১, ১৯৮৭ সালে ৮, ১৯৯২ সালে ১৬ এবং ১৯৯৬ সালে সেঞ্চুরি হয় ১৬টি।

ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত সর্বশেষ ১৯৯৯ সালে সেঞ্চুরি হয় ১১টি। ২০০৩ এবং ২০০৭ সালের সেঞ্চুরি সংখ্যা যথাক্রমে ২১ এবং ২০টি।

বিশ্বকাপের মঞ্চে প্রথম সেঞ্চুরিয়ান বিশ্বকাপে প্রথম সেঞ্চুরি করা খেলোয়াড় ইংল্যান্ডের ডেনিস এ্যামিস এবং নিউজিল্যান্ডের গ্লেন টার্নার। উভয়েই ১৯৭৫ বিশ্বকাপের প্রথম দিন সেঞ্চুরি করেন।
লর্ডসে ভারতের বিপক্ষে ১৩৭ রানের ইনিংস খেলেন এ্যামিস এবং এজবাস্টনে ইস্ট আফ্রিকার বিপক্ষে অপরাজিত ১৭১ রানের ইনিংস খেলেন টার্নার।

No comments

Powered by Blogger.