মানসুর মুজাম্মিলের একগুচ্ছ ছড়া

মানসুর মুজাম্মিলের একগুচ্ছ ছড়া 





মানসুর মুজাম্মিলের একগুচ্ছ ছড়া - আগুয়ান Agooan mansur Mujammil







একটা দুপুর 


একটা দুপুর দাও গো আমায় 
একটা দুপুর দাও 
আমি তোমায় দিতে পারি যা তুমি আজ চাও!

একটা দুপুর রোদের দুপুর 
মিষ্টি-হাওয়ার ঢেউ 
হয়তো তাকে রাখবে মনে হয়তো ভোলে কেউ

একটা দুপুর স্মৃতির দুপুর 
পাখপাখালির ডাক 
হয়তো স্মৃতি বলা হবে হয়তো রবে ফাঁক

একটা দুপুর ফুলেল দুপুর 
খুব প্রয়োজন আজ 
হয়তো আমি হয়েই যাবো সৎ রাজাধিরাজ



হারিয়ে যাবার দিন 


আজকে আমার 
হারিয়ে যাবার দিন 
গাঁয়ের কাছে মায়ের কাছে আমার অনেক ঋণ

 এই যে পুকুর 
এই যে দীঘি 
এই যে বসতবাটি 
এই যে আমার স্মৃতির মিনার- সৃষ্টি পরিপাটি

এই যে আকাশ 
ঢেউ ছড়ানো 
সাদা মেঘের খেইল 
কখন দিনের শুরু- কখন হারায় বেইল

দুরন্ত এক 
ছেলের সাথে 
ঝড় বাদলের ফাইট 
সবাই জানে এই দামালের 
নেক্সট ফিউচার ব্রাইট  

কোথায় গেলো 
সেই পাখিরা
কোথায় আপনজন 
কোথায় আমার 
হারিয়ে গেলো স্মৃতিঘেরা সন !

আজকে আমার বুকটা দুরুদুরু 
দুঃখভরা 
কঠিন দিনের শুরু 
মা হারিয়ে 
বাপ হারিয়ে একা 
বুকের ভেতর অজগরের দেখা

কোথায় আমার 
ভাইবোনেরা 
মিষ্টি দিনের সাথি 
ধরবে কে গো আমার মাথায় 
দুখসরানো ছাতি ?

আকাশ আমায় 
নাও তুলে নাও 
তোমার নীলের মাঝে 
আমি যেন থাকি ওগো নীল বানানোর কাজে


ফিরে পাবে না 


বাড়ি ফিরে পাবে 
গাড়ি ফিরে পাবে 

টাকা ফিরে পাবে 
চাকরি ফিরে পাবে 

ছেলে ফিরে পাবে 
মেয়ে ফিরে পাবে 
স্ত্রী ফিরে পাবে 

পদ ফিরে পাবে 
পথ ফিরে পাবে 
নদী ফিরে পাবে 
গদি ফিরে পাবে 

ফিরে পাবে না 
শ্বাস 
যখন তুমি 
লাশ



রবীন্দ্রনাথ 


তুমি তার পাশে থাকো 
যে জন্মেছে তোমাকে জাগাতে 
যার বাড়ি 
জোড়াসাঁকো
জোড়াসাঁকো 

তুমি বারবার যার দিকে 
বাড়াবে হাত 
সে হলো তোমার প্রিয় 

রবীন্দ্রনাথ
রবীন্দ্রনাথ  

তোমার চোখকে 
ধাঁধিয়ে দেবে 
তোমার স্বপ্ন শানিয়ে দেবে 
তোমাকে ভাবাবে দিনরাত 
'সোনারতরী'তে আসবে সে জন 

রবীন্দ্রনাথ 
রবীন্দ্রনাথ  

'যোগাযোগ' করে চিঠি দেবে তুমি
তার 'ডাকঘর'
'শারদোৎসব' ঠিক যাবে তুমি
ধর্ম তোমাকে দেবেনা ভাগ করে 

লিখে লিখে তুমি পাড়া করো 
মাত 
তোমার কাঁধে হাত দিয়ে তোমাকে 
সাহস জোগাবে 

রবীন্দ্রনাথ 
রবীন্দ্রনাথ  

তুমি যে ভাবছো 
তুমি যে লিখছো 
সে যে তোমার জাত 
তোমাকে টেনে তুলবে 

রবীন্দ্রনাথ 
রবীন্দ্রনাথ


সিন্ডিকেটের ভূত 


 এই তো আমার জন্মভূমি 
এর উপরে হাঁটি 
সকাল থেকে রাত অবধি- কেবল খাটাখাটি

বুকের ভেতর দুঃখ নিয়ে 
ঘরের বাহির হই 
সন্ধ্যেবেলা ঠিকই আমি চির-অভাবী রই

অল্প কিছু রুজি করি
বাজারে যায় সব 
ঘরের ভেতর আমার কেবল- অভাব কলরব

আমার পেটে হাত দিয়েছে
সিন্ডিকেটের ভূত 
আমি কী আর করতে পারি- গরীব মায়ের পুত !  


No comments

Powered by Blogger.