মাহবুবা করিমের পদাবলি

মাহবুবা করিমের পদাবলি


মাহবুবা করিমের পদাবলি - আগুয়ান - Agooan
মাহবুবা করিমের পদাবলি - আগুয়ান 




চিঠি-


      আমার এই অনশন, প্রেম পাওয়ার দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে
থাকা নিরব অভিযোগ ; ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ব্যথার অনু-পরমানু,
দীর্ঘঃশ্বাসের মেঘ  আর রঙের সাথে বিস্তর অভিমান নিয়ে
বিধবা যাপন সকলেই দেখতে পায়...

  আমার এই ব্যথার নীল বৃষ্টিপাত কোটি কোটি মানুষের
বুকের বৃত্ত ছেদ করে দেয়, শুধু তুমি দেখেও দেখো না
কেবল 'যার ক্ষত তারই রক্ত ঝরে বলে', তাই ক্ষত
 আমার আমাকেই পোহাতে হয় রক্তে ভেজা কালজীবন

  তুমি কি টের পাও? অভিযোগ কখন গাঢ় হয়? যখন তার
অবস্থান ঠোঁটে নয় অন্তরে জমা হয় অশ্রু কখন তরল
 থেকে কঠিনে পরিণত হয় জানো? যখন অন্তরে রক্তঝর্ণা বয়
আর তুমি, তুমি কখন বিশ্বাসঘাতক হয়ে প্রসব করো
একশত সাতান্ন কোটি ব্যথার বীজ, জানো? যখন আমি
 নামক ব্যথার দীর্ঘ প্রাঁচীলকে কাচের মতই চূর্ণ-বিচূর্ণ করে
দূর থেকে দেখো বেদনার ভূকম্পন
নিশ্চয় আনন্দ হয় তখন খুব! উল্লাসে নিজের ভেতর হেসে
ফেটে পড়ে দেবতা সেই দেবতা যে দেবতার পা ধুয়ে দেয়
 চোখের নিরেট স্বচ্ছ জল সেই দেবতা যে শুধু গ্রহন করে
আর গ্রাস করে পূজারীর বিশ্বাস

  একদিন ঠিক জানাজানি হবে সেই দেবতার শরীর শুধু
আগুনের, যে- ভালোবেসে নিজেকে উৎসর্গ করেছে, পুড়েছে
একদিন জানাজানি হবেই সেদিন হয়তো থাকবো না
 তোমার সেই ছলনার নীল নকশায় পা বাড়াবে অনেকেই,
 তোমার সেই রেখে যাওয়া নীল বিষ ঠোঁটে
অনেকের কণ্ঠনালী পুড়ে ছাই হবে নিশ্চুপ সিগারেটের মত
সেদিন হয়তো আবিষ্কার করবে অজানা জীবাশ্ম  অভিমান
 আর  ভালোবাসার নাম করে যে বিষের ছুরি
হৃদপিণ্ডে গুজে দিয়েছো সেই নিঃসংস্ব গল্প

 মনে রেখো, মানুষ একবার খুন হয় একই মানুষ অন্তরে অন্তরে
গোপনে গোপনে ভাঙনে-ভঙনে কতটা চূর্ণ-বিচূর্ণন
হয় একটা হৃদয় সে গল্প আমি পুতে যাবো অসংখ্য ঠক
 প্রতারক আর অপ্রেমিকের শিলাবুকে যেদিন যেই মুহূর্তে
যেকোনো প্রেমিকের অন্তরে একটি পাতাও জন্ম নিবে
ভালোবাসার সেদিন এই সহস্র মৃত্যুর জীবন আমার স্বার্থক জেনো



অপ্রত্যাশিত স্পর্শ 

অভিশাপ দেই সেই প্রেমিককে
যার ঠোঁট আমার ঠোঁট ছুঁলে কেঁপে উঠি না

অথচ- আকস্মিক অপরিচিত চোখের স্পর্শেই
তোলপাড় হই রোজ



রাতের কাব্য

যখন প্রেমের মৌসুম
সংসার সমাজ ধর্ম উপেক্ষা করে প্রেমে পড়েছি
নিয়ম অনিয়মে প্রেমে পড়েছি
প্রেমে পড়েছি রমণীর বেদনাহত চোখে
হিন্দু বৌদ্ধ মুসলিম খ্রীষ্টান কিচ্ছু মানিনি
এগিয়ে গিয়েছিআমি দূর্বার এগিয়েছি
ধ্বংসের তাণ্ডবের মিছিলের বিপরীতে
প্রেম প্রেম প্রেম বলে বিশ্ব কাঁপিয়ে
নারীর চিবুক ছোঁয়া জল ভালবেসেছি জেনো

যখন প্রেমের মৌসুম
আমার হাত বেঁধে কেউ নিষ্কৃয় করতে পারেনি
মস্তিষ্ক বলেছে ভালোবাসি ভালোবাসি ভালোবাসি
বিচ্ছিন্ন কাঁচের মত আহত হৃদয় বলেছে ভালোবাসি
আমার রক্ত শিরা উপশিরা ঠোঁট আঙুল বলেছে ভালোবাসি

যখন প্রেমের মৌসুম আমি প্রেম করেছি
ছলনা করিনি

স্মৃতিচারণ 

ঠোঁটের ভেতর ঠোঁট সিঁধিয়ে দেই
কোন বৈধতা নেই,
স্বাক্ষী নেই,
জানাজানির ভয় নেই,
চিরকালীন পাবো কি পাবো না
তার নিশ্চয়তা নেই,
আমাদের প্রথম চুম্বন অঘোষিত
লোকচক্ষুর অন্তরালে এক গুপ্ত রাজ,
নাম মাত্র অধিকারে তার সৃষ্টি
বেনামি ঝড়ে ভাঙে চিরকাল

আমাদের প্রথম চুম্বন,
তোমারও কি দগদগে ক্ষত?
আমি তা বহন করি মৃত্যু পর্যন্ত

তুমিহীন জীবন

একটা দিন ছিল
যখন আমি রোজ তোমাকে চাইতাম
খেতে শুতে বসতে এমনকি ঘুমের ভেতর
মৃত্যুর আগে পরে এমনকি সহস্র জন্ম
আমি তোমাকেই চাইতাম

কি আশ্চর্য এখন তুমি নেই
দিন পেরুচ্ছে তুমি ফিকে হচ্ছো
ভুলতে ভুলতে আমি অভ্যস্ত হয়ে পড়ছি
চলতে বলতে শুতে এমনকি
তুমিহীন দুটো একটা স্বপ্ন দেখতে

কি অদ্ভুত জীবন!
কে বলে তুমিহীন বাঁচা যায় না
বরং তুমিহীন আজ আমি বেশ আছি
চুটিয়ে আছি

No comments

Powered by Blogger.